ICC ODI World Cup 2023: বিশ্বকাপে ই-টিকিটের ব্যবস্থা করতে পারল না BCCI


বোর্ড অফ কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়া (BCCI) সেক্রেটারি জয় শাহ নিশ্চিত করেছেন যে, ২০২৩ বিশ্বকাপের জন্য কোনও ই-টিকিটের সুবিধা থাকছে না। এটা স্পষ্ট করা হয়েছে যে, ভক্তদের ফিজিক্যাল টিকিট কাটাটাই বাধ্যতামূলক। জয় শাহ দাবি করেছেন যে, ৭-৮টি কেন্দ্র থেকে এই ফিজিক্যাল টিকিট পাওয়া যাবে।

প্রসঙ্গত, এই বছরের ওডিআই বিশ্বকাপ ভারতে ৫ অক্টোবর থেকে ১৯ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। ২০২৩ বিশ্বকাপের সময়সূচীতে সম্ভাব্য পরিবর্তনের বিষয়ে দিল্লিতে বৃহস্পতিবার (২৭ জুলাই) একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকের পরে জয় শাহ মেগা ইভেন্টের জন্য টিকিট সংক্রান্ত বিষয়ে মুখ খুলেছেন।

কেন বিশ্বকাপের জন্য ই-টিকিট পাওয়া যাবে না, তার ব্যাখ্যা দিয়ে বিসিসিআই সচিব সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন যে, বোর্ড প্রথমে দ্বিপাক্ষিক ভাবে ই-টিকিট চালু করতে চায়। জয় শাহের দাবি, ‘এই মুহূর্তে আমরা ই-টিকিটের ব্যবস্থা বাস্তবায়ন করতে পারছি না, প্রথমে আমরা দ্বিপাক্ষিক সিরিজে এটি বাস্তবায়ন করব এবং তার পরেই বড় ইভেন্টের দিকে এগিয়ে যাব। তবে ৭-৮টি কেন্দ্রে আগে থেকেই ফিজিক্যাল টিকিট রিডেম্পশন নিশ্চিত করব। কিন্তু ফিজিক্যাল টিকিট আগে থেকে ধরে রাখতে হবে।’

আরও পড়ুন: চাহালের মতো সিনিয়র সাহায্য করলে আত্মবিশ্বাস বাড়ে- কুলচা জুটিকে মিস করছেন কুলদীপ

আসলে, ভারতের যে কোনও স্টেডিয়ামে ম্যাচ দেখতে হলে ফিজিক্যাল টিকিট থাকা বাধ্যতামূলক। যদি অনলাইনেও টিকিট বুক করে থাকে, তবুও স্টেডিয়ামে ঢুকতে হলে ফিজিক্যালি গিয়ে টিকিট সংগ্রহ করতে হবে। তবেই স্টেডিয়ামে প্রবেশ করা যাবে। এতে ভক্তদের অনেক সমস্যায় পড়তে হয় এবং ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে হয়। এই কারণে ই-টিকেটের চাহিদা বেশি।

জয় শাহ আরও বলেছেন, ‘আমদাবাদ এবং লখনউয়ের মতো বড় স্টেডিয়ামগুলি, যেখানে আসন সংখ্যা ইনেক বেশি, সেখানে ই-টিকিট পরিচালনা করা কঠিন কাজ হবে। বিশ্বকাপের টিকিটের মূল্যসহ সব কিছু শীঘ্রই ঘোষণা করা হবে।’

আরও পড়ুন: অভিষেকেও সাতে ব্যাট করেছি- পরে নামার ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে পুরনো স্মৃতিতে ডুবলেন রোহিত

যদিও বিশ্বকাপের আর মাত্র কয়েক মাস বাকি, টুর্নামেন্টের টিকিট বুকিং সংক্রান্ত বিষয়ে এখনও বিস্তারিত কিছু জানানো হয়নি। এই বিষয়ে একটি আপডেট শেয়ার করে জয় শাহ আশ্বাস দিয়েছেন যে, শীঘ্রই বিসিসিআই এবং আইসিসি যৌথ ভাবে সবটা ঘোষণা করবে। তিনি বলেছেন, ‘আজ (বৃহস্পতিবার) টিকিটের বিষয়ে রাজ্য সংস্থাগুলির সঙ্গে আমাদের কথা হয়েছে। ৯০% অ্যাসোসিয়েশন ম্যানিফেস্ট নিয়ে এসেছিল। এক-দু’টি সংস্থা কাছে এটি প্রস্তুত ছিল না। বিষয়টি সমাধানের জন্য আমরা তাদের সোমবার পর্যন্ত সময় দিয়েছি। এর পর আইসিসি এবং বিসিসিআই যৌথ ভাবে টিকিটের মূল্য সহ সব কিছু ঘোষণা করবে। টিকিট পার্টনারও প্রায় সাজানো।’ ২০২৩ বিশ্বকাপের সূচি প্রকাশ করা হয়েছে গত মাসের শেষের দিকে। জয় শাহ স্বীকার করেছেন যে, সূচিতে কিছু পরিবর্তন ঘটতে পারে।



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back To Top