সুদানে ২৪৫ মিলিয়ন ডলারের সহায়তা দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র


যুদ্ধরত সুদানকে ২৪৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের সাহায্য ঘোষণা করেছে যুক্তরাষ্ট্র। মঙ্গলবার দেশটির পক্ষ থেকে এ ঘোষণা দেয়া হয়। দেশটি জানিয়েছে, এই অর্থ বিভিন্ন মানবাধিকার সংস্থার কাছে পৌঁছে দেয়া হবে, যারা যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে কাজ করে। প্রায় দশ লাখ মানুষ সুদানে যুদ্ধের জেরে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। লাখ লাখ মানুষ ঘরছাড়া। তাদের কাছে সাহায্য পৌঁছে দেয়া হবে বলেও ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

এদিকে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন জানিয়েছেন, সামরিক বাহিনীর প্রধান এবং বিদ্রোহী প্যারামিলিটারির প্রধানকে জানানো হয়েছে, তারা যুদ্ধবিরতি চুক্তি ভঙ্গ করলে তাদের বিরুদ্ধে কঠিন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হবে।

রেডক্রস জানিয়েছে, যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর বহু মানুষ ঘর হারিয়ে পার্শ্ববর্তী চাদের জঙ্গলে গিয়ে আশ্রয় নিয়েছেন। কিছুদিনের মধ্যেই সেই জঙ্গলে বৃষ্টি শুরু হবে। আর তা শুরু হলে জঙ্গলের ওই জায়গা যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়বে। না খেতে পেয়ে মৃত্যু হতে পারে অসংখ্য মানুষের। ফলে দ্রুত তাদের কাছে সাহায্য পৌঁছানো প্রয়োজন বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

আরও পড়ুন…যুক্তরাষ্ট্রে আঘাত হানতে যাচ্ছে ঘূর্ণিঝড় ‘মাওয়ার’

সুদানের প্যারামিলিটারি প্রধান জেনারেল মোহামেদ হামদান দাগালো সেনা বিদ্রোহ ঘোষণা করেছেন। তার যোদ্ধাদের সঙ্গে লড়াই হচ্ছে দেশের সেনাপ্রধান জেনারেল আবদেল ফাতাহ বুরহানের। কোনও পক্ষই যুদ্ধ থামাতে রাজি নয়।

দাগালো জানিয়েছেন, দেশের ক্ষমতা হাতে না পাওয়া পর্যন্ত তিনি লড়াই চালিয়ে যাবেন। এই পরিস্থিতিতে গত রোববার সৌদি আরব এবং যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যস্থতায় লিখিত যুদ্ধবিরতি চুক্তিতে স্বাক্ষর করে উভয় পক্ষ। দুই পক্ষ থেকেই সাতদিন যুদ্ধবিরতি মেনে নেয়া হয়েছে। সূত্র: বিবিসি, আলজাজিরা

বাংলাদেশ জার্নাল/সামি





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back To Top