মহাসড়কের পাশে পড়েছিল যুবকের লাশ


নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলায় শফিকুল ইসলাম (২৯) নামে এক যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৭ জুলাই) সকালে মদনপুর এশিয়ান হাইওয়ের পাশ থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য একজনকে আটক করা হয়েছে। 

শফিকুল ইসলাম উপজেলার মদনপুর ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের দক্ষিণপাড়া এলাকার মজিবুর রহমানের ছেলে। তিনি এক সময় বাসচালক ছিলেন।

জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটককৃত আবু রায়হান (২২) মদনপুর আন্দির পাড়া এলাকার মো. দুলাল মিয়ার ছেলে। তিনি প্রায় সময় নিহত শফিকুলের সঙ্গে চলাফেরা করতেন। 

নিহতের স্বজনরা জানান, বুধবার সকালে শফিকুল ইসলাম বাড়ি থেকে বের হয়ে রাতে বাড়ি ফিরেনি। পরের দিন বৃহস্পতিবার সকালে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। কে বা কারা শফিকুলকে হত্যা করেছে আমরা জানি না। এই ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের বিচারের দাবি জানান স্বজনরা। 

ধামগড় পুলিশ ফাঁড়ির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান মানিক বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ বলা সম্ভব হবে। এই ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আবু রায়হান নামে এক যুবককে আটক করা হয়েছে। তিনি ওই রাতে শফিকুলের সঙ্গে ছিল বলে জানতে পেরেছি।’

ওসি আরও বলেন, ‘নিহত শফিকুলের বিরুদ্ধে মাদকসহ একাধিক অভিযোগে মামলা রয়েছে। তিনি এক সময় বাস চালাতো, এখন তেমন কিছু করে না।’ 





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back To Top