বিয়ের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা স্থগিত!


আন্তর্জাতিক ডেস্ক: মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি আরবের তাবুক শহরের ইন্টারমিডিয়েট পড়ুয়া ছাত্র আলী আল-কায়েসী। তিনি মাত্র ১৬ বছর বয়সে তার চাচাতো বোনকে বিয়ে করেছিলো।


আরও পড়ুন: যুক্তরাষ্ট্রে আঘাত হেনেছে ‘হিলারি’


কায়েসী’র চাচাতো বোন অর্থাৎ তার স্ত্রীর বয়স এখনও ১৫ বছর। বিয়ের এক বছর পরেই তিনি পুত্র সন্তানের বাবা হন।


লাইফ অব লন্ডন পত্রিকার এক প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, সৌদি আরবের সর্বকনিষ্ঠ বর হলেন আলী আল কায়েসী। খুব অল্প বয়সে বিয়ে করার কারণে তিনি আরবের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক আলোচনায় ছিলেন।


আরও পড়ুন: ভারতে বাস খাদে পড়ে হতাহত ৩৪


আলী আল কায়েসীর বিয়ের সময় তার বাবা বলেছিলেন, আমার ছেলে যখন আমাকে বিয়ে করার কথা বলেছে এবং সে নিজের জন্য পাত্রী খুঁজতেছিলো তখন আমি কোনো দ্বিধা করিনি।


বরং তার জন্য পাত্রীর ব্যবস্থা আমরাই করেছি। কারণ আমি জানতাম যে, আমার ছেলে একজন দায়িত্বশীল এবং সে নিজ স্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহণ করতে পারবে।


আরও পড়ুন: ব্রাজিলে বাস খাদে পড়ে নিহত ৭


তার বাবা আরও জানান, আমি নিজেও তাড়াতাড়ি বিয়ে করেছি। আমি মোট তিনটি বিয়ে করেছি । তিন সংসারে আমার ষোলটি ছেলে মেয়ে আছে।


আলী আল্ ক্বায়েসী হলো প্রথম নাতি জানিয়ে তার দাদা মুহাম্মদ আল-কায়েসী বলেন, যে নাতি এতো অল্প বয়সে বিয়ে করেছে এবং তার ছেলে ও স্বাভাবিকভাবে জন্ম নিয়েছে।


আরও পড়ুন: দুই ইসরায়েলিকে গুলি করে হত্যা


আর অল্প বয়সে বিয়ে করলে এবং সন্তান জন্ম দিলে নবজাতক শিশুর স্বাস্থ্যও অনেক ভালো থাকে। আলী আল-কায়েসী বর্তমানে ইন্টারমিডিয়েট অধ্যয়নরত।


উল্লেখ্য, বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ হতে বিয়ের জন্য তাকে ছুটি দিয়ে বিয়েতে উৎসাহিত করা হয়েছিলো।


আরও পড়ুন: ১০০ ব্যক্তির বিরুদ্ধে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা


শিক্ষকরা তার বিয়েতে দামী দামী উপহারও দিয়েছেন এবং বিয়ের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষাও স্থগিত করা হয়েছিলো। সূত্র: লাইফ অব লন্ডন ও আরব নিউজ।


সান নিউজ/এইচএন



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back To Top