দলীয় নেতাকর্মীদের মারধরের মামলায় আ.লীগ নেতা কারাগারে


নাটোরের সিংড়া উপজেলার কলম ইউনিয়নে নিজ দলের নেতাকর্মীদের মারধরে মামলায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও কলম ইউপি চেয়ারম্যান মইনুল হক চুনুসহ তিনজনকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। 

সোমবার (১২ জুন) দুপুরে নাটোরের অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রওশন আলম জামিন নামঞ্জুর করে তাদের কারাগারে পাঠান।

অপর দুজন হলেন চেয়ারম্যানের সমর্থক রমিজুল করিম ও মো. আলম।

মামলার অভিযোগে জানা যায়, গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি নাছির উদ্দিন। একই পদে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে নির্বাচিত হন মইনুল হক চুনু। এরপর থেকে উভয় পক্ষের কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে বিরোধ চলছিল। গত ২২ এপ্রিল সন্ধ্যার পরে নাছির উদ্দিনের সমর্থক ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি এমদাদুল হক বাবলু দলীয় কর্মীদের নিয়ে বাজারে বসে ছিলেন। এসময় চেয়ারম্যান ও তার অনুসারীরা হামলা করে। আওয়ামী লীগ নেতা এমদাদুল হক বাবলু, ব্যবসায়ী আসাদুজ্জামান ভুট্টু এবং কলেজ শিক্ষক কাজলকে কুপিয়ে জখম করা হয়। তাদের রক্ষা করতে এলে আরও তিনজনকে আহত হন। 

এ ঘটনায় আহত বাবলুর ভাই এনামুল হক জগলু বাদী হয়ে সিংড়া থানায় মামলা করেন। মামলার প্রধান আসামি করা হয় কলম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মইনুল হক চুনুকে। তিনি ছাড়াও ২১ জনকে এ মামলার আসামি করা হয়।





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back To Top