গাসিক নির্বাচন: শেষ মুহূর্তে জমজমাট প্রচরণা 


আগামী ২৫ মে অনুষ্ঠিত হবে গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন। আজ (মঙ্গলবার) রাত ১২টা থেকে শেষ হচ্ছে নির্বাচনী প্রচরণা। আর তাই শেষ মুহূর্তের প্রচরণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন মেয়র, কাউন্সিল ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলরা। 

গাজীপুর মহানগরীর অলি-গলিতে প্রার্থীরা ঘুরে ঘুরে ভোটারদের কাছে ভোট চাচ্ছেন। দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রুতি। চলছে মাইকিং ও লিফলেট বিতরণ। প্রার্থীদের আমলনামা নিয়ে সর্বোত্ত চলছে নানা আলোচনা। যোগ্য প্রার্থী হিসাবে কাকে বেছে নিবেন সেটা নিয়ে চায়ের দোকান, মুদি দোকানসহ বিভিন্ন স্থানে ভোটারদের মধ্যে চলছে নানা হিসাব নিকাশ। 

মঙ্গলবার সকাল থেকে ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী গাজী আতাউর রহমান গাজীপুর মহানগরীর টঙ্গী পূর্ব, টঙ্গী পশ্চিম, পূবাইল, সদর মেট্রো, সালনা, বাসন, গাছা, কাশিমপুর ও কোনাবাড়ি এলাকায় সফর করে হতপাখা প্রতীকের বিভিন্ন পর্যায়ের দায়িত্বশীলদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। 

জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী এমএম নিয়াজ উদ্দিন সকাল থেকে গাজীপুর সদর ও গাছা থানার বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ ও প্রচরণা করেন। এসময় তিনি ভোটারদের প্রতি লাঙ্গল প্রতীকে আস্থা রেখে ভোট দিতে আহ্বান জানান। 

পিছিয়ে নেই স্বতন্ত্র প্রার্থী জায়েদা খাতুনও। আজ দুপুরে নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করে বিকেলে বের হন তিনি প্রচরণায়। ছেলে জাহাঙ্গীর আলমকে সঙ্গে নিয়ে সিটি করপোরেশনের ছয়দানা, তেলিরচালা, চান্দনা চৌরাস্তা এলাকায় প্রচরণা চালান তিনি। 

সতন্ত্র প্রার্থী সরকার শাহনুর ইসলাম রনি সকালে তার টঙ্গীর বাসায় ইশতেহার ঘোষণা করেন। পরে তিনি মহানগরীর বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ ও প্রচার প্রচরণায় অংশ নেন। 

তবে বাংলাদেশের আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আজমত উল্লা খান আজ প্রচরণায় বের হননি। তবে তার পক্ষে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা বিভিন্ন দলে বিভক্ত হয়ে প্রচরণায় অংশ নিয়েছেন। 

গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ফরিদুল ইসলাম বলেন, আজ রাত ১২ টার পর থেকে সবধরনের নির্বাচনী প্রচরণা বন্ধ হচ্ছে। আগামী ২৫ মে গাজীপুর সিটি করপোরেশনে একটি অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচন হবে বলে আমরা বিশ্বাস করি। 





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back To Top